আব্দুল খালেক শরীয়তপুরীকে বয়কটের ডাক

212

খালিদ সাইফুল্লাহ, সাতক্ষীরা থেকে
ইসলামী বক্তা আব্দুল খালেক শরীয়তপুরীকে বয়কটের ডাক দিয়েছে সাতক্ষীরাবাসী ৷ কারণ হিসেবে দেখা গেছে তিনি অগ্রীম টাকা নিয়েও মাহফিলে আসেননি ৷ গতকাল সাতক্ষীরা জেলার পাটকেলঘাটা থানাধীন ভারসা গ্রামের একটি মাহফিলকে কেন্দ্র করে এই বয়কটের ডাক দেন মাহফিল কর্তৃপক্ষ ৷ তারা বলেন মাহফিলে প্রধান বক্তা হিসেবে আব্দুল খালেক শরীয়তপুরী আসার কথা থাকলেও তিনি আসেন নি।

মাহফিল কর্তৃপক্ষের দাবি তারা জোর প্রচেষ্টা চালিয়েও তাকে উপস্থিত করতে পারেন নি। এ জন্যে মাহফিল কতৃপক্ষ আন্তরিক ভাবে দুঃখ প্রকাশ করেছেন ৷

- Advertisement -

এছাড়াও জানা যায়, আব্দুল খালেক শরীয়তপুরীকে এর আগেও এমনটা করতে দেখা গেছে ৷ তিনি টাকা নিয়ে মাহফিলে আসেন না ৷ তাই তরুণদের দাবি এই বাটপারকে বয়কট করুন।

মাহফিল কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, মাহফিল কমিটি প্রায় আড়াই মাস ধরে মাহফিলের প্রস্তুতি নিয়ে আসছে ৷ তারা প্রধান বক্তা আব্দুল খালেক শরীয়তপুরীকে অগ্রীম ৫০০০/- টাকা দিয়েছে ৷ গতকাল (মাহফিলের দিন) সকালে বক্তার চাওয়া অনুযায়ী আরো ১০,০০০/- টাকা অগ্রীম দিয়েছে। বক্তা দাবী করেছে এই ১০,০০০/- টাকা নাকি তিনি পান নি। অথচ প্রথম ৫,০০০/- যে নাম্বারে দিয়েছে, সেই একি নাম্বারে এই টাকা দিয়েছে, যা প্রমাণিত।
এর পরেও বক্তা আব্দুল খালেক শরীয়তপুরী ঢাকা থেকে সকালে রওনা দিয়েছেন বলে মাহফিল কমিটিকে বলে আসছেন ৷ বিকেলে জানান, ফেরিতে অনেক জ্যাম, খানিক পরে জানান, তিনি ফেরি পার হয়ে গোপালগঞ্জ এসেছেন ৷ রাত পৌনে ৯.০০ টায় বলেন, তিনি যশোর চলে আসছেন ৷ যেখান থেকে ১ ঘন্টার মধ্যে মাহফিল স্থলে পৌছানো যায়। এরপর রাত ৯.০০ টা থেকে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। এবং তিনি চুড়ান্ত ভাবে সে মাহফিলে আসেন নি। এ সময় না আসার সংবাদ প্রকাশ পেলে মাহফিলে একটি অস্বস্থিকর অবস্থা বিরাজ করে।
তারা এই বক্তাকে বাটপার বলে বয়কট করার আহবান জানান ৷

বক্তা আব্দুল খালেক শরীয়তপুরীর নাম্বারে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি ৷

- Advertisement -