- Advertisement -

- Advertisement -

চিকিৎসা সেবা ও ত্রাণ বিতরণের দায়িত্ব সেনাবাহিনীকে দেওয়ার প্রস্তাব জন আকাঙ্খার বাংলাদেশের

0 110

করোনাভাইরাসের আক্রান্তদের চিকিৎসা, লকডাউনে কর্মহীন হয়ে পড়া গরীবদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণের দায়িত্ব সেনাবাহিনীকে দেওয়াসহ ১১ দফা প্রস্তাব পেশ করেছে ‘জন আকাঙ্খার বাংলাদেশ’। গতকাল শনিবার সংগঠনটির কার্যালয় থেকে ভিডিও সংবাদ সম্মেলনে এসব প্রস্তাবনা তুলে ধরা হয়।

জামায়াতে ইসলামী থেকে কয়েকজন দলছুট নেতাদের নতুন রাজনৈতিক দল গঠনের অংশ হিসেবে গেলো বছরের এপ্রিলে জন আকাঙ্খার বাংলাদেশ নামে তারা একটি প্ল্যাটফর্ম গড়েন। এর প্রধান সমন্বয়ক মজিবুর রহমান মনজু ভিডিও সংবাদ সম্মেলনে প্রস্তাবনাগুলো তুলে ধরেন।

উল্লেখযোগ্য প্রস্তাবগুলোর মধ্যে জেলা উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে সর্বদলীয় সমন্বয় কমিটি গঠন করা, করোনা পরীক্ষায় পর্যাপ্ত কিটের ব্যবস্থা করা, সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধায়নে করোনা চিকিৎসায় প্রতি জেলায় ফিল্ড হাসপাতাল তৈরি করা, ত্রাণ তৎপরতার দায়িত্ব ব্যবস্থাপনা সেনাবাহিনীর কাছে ন্যস্ত করা, জরুরি সেবা প্রদানকারী কর্মীদের ঝুঁকি ভাতা প্রধান করা, প্রণোদনা প্যাকেজ পুনর্বিন্যাস করে সকল পর্যায়ের ক্ষতিগ্রস্ত মানুষকে আর্থিক সহায়তা দান, খাদ্য কৃষি শিল্প উৎপাদন অব্যহত রাখা ইত্যাদি ।

মজিবুর রহমান মনজু বলেন, ত্রাণ সামগ্রী লুটপাট হচ্ছে। দরিদ্র মানুষ সমতার ভিত্তিতে খাদ্য সামগ্রী পাচ্ছে না। মন্ত্রী ও সরকারের কর্তা ব্যাক্তিরা দায়িত্বজ্ঞানহীন বক্তব্য দিচ্ছেন।




উক্ত সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন জন আকাঙ্খার প্রধান সংগঠন ও সাবেক সচিব এ এফ এম সোলায়মান চৌধুরী, অ্যাডভোকেট তাজুল ইসলাম, ব্যারিস্টার আসাদুজ্জামান ফুয়াদ এবং মেজর (অব:) আবদুল ওহাব মিনার প্রমুখ।