- Advertisement -

- Advertisement -

ফজলুল হকের কবিতা নিস্তরঙ্গ জীবনের কোলাহল–শীর্ষবার্তা ডটকম

0 80

নিস্তরঙ্গ জীবনের কোলাহল
ফজলুল হক

এই বন্দি জীবনের হাপিত্যেশ,
নির্ভেজাল চার দেয়ালি ঘরবসতি
এ এক নতুন জীবনবোধ।
অচেনা জগতের কাব্যগাথা।
দিনগুলো নিতান্ত আটপৌরে।

এই জীবনেরও আছে ভিন্নতর ছন্দ।
আছে নতুন মাত্রা, নবতর ব্যঞ্জনা।
এ জীবন নিস্তরঙ্গ নদীর মতো বহমান।
বড় অনাড়ম্বর, বড় সাদামাটা।

আড়ম্বরহীনতারও থাকে ভিন্ন আয়োজন,
নীরব নির্ভেজাল ঐশ্বর্য।

এখানে ডামাডোল নেই, হুল্লোড় নেই,
নেই কোন কলরব।
কি এক নীরব সময় কাটে দিনমান।

তবু নীরবতারও ভাষা আছে,
নৈশব্দেরও আছে একরাশ মুখরতা।
মৌনতানের আছে সুর, লয়, ছন্দ।

এ জীবনে চাকচিক্য নেই,
আছে হৃদয়বৃত্তিক বর্ণচ্ছটা।
খুব সাধারণ জীবন বোধেরও থাকে
বহুমাত্রিক তৃপ্তিবোধ।

এই সাদা-কালো সময়ের প্রান্তে বসে
জীবনের নতুন গল্প সাজাই কবিতার ফ্রেমে।
জীবনের গল্পে হয় মাত্রা বদল।
আমি “কবিতা”র প্রেমে বাঁধা আছি যুগ-যুগান্তর
ধরে।
তবু এই নিস্তরঙ্গ পাণ্ডুর সময়ে অকারণেই
পাল্টে যায় কবিতার ছন্দ,
বদলায় বর্ণিল অবয়ব।
শান্ত বোধের জলে জেগে ওঠে প্রলয় জোয়ার।

জগতে কিছুই চিরায়ত নয়,
নয় শ্বাশ্বত।
গৃহস্থালি, ঘর-দোর, অনুভব, অনুভূতি
জমিয়ে রাখা আশার ফ্রেমও পাল্টে যায় ধীরে ধীরে।
পাল্টায় হৃদয়ের মানচিত্র,
বোধের বেসাতি।
প্রেমের পিরামিডও ভেঙ্গে পড়ে একদিন।

বিশাল আকাশের অগণন নক্ষত্র থেকে
যদি খসে যায় একটি তারকা,
কে তার হিসেব রাখে বলো ?

তবু,
কবিতার কাছেই আমি জমা রাখি একটা আকাশ,
সবটুকু নীল।
ব্যথার নীলোৎপলে এখানে খেলা করেনা বর্ণিল ভ্রমর,
তবু আমার অনুভূতি জেগে থাকে অপরিসীম মগ্নতায়।
ভাঙ্গা সেতারে বাঁধি নতুন তাল,
হারানো বাঁশিতে তুলি সুর,
তন্ত্রীতে তন্ত্রীতে অমিয় সিম্ফনি।

নীরব প্রেমেরও ভাষা আছে।
মৌনতারও আছে অপরূপ কোলাহল।