বাংলাদেশের সেরা হাফেজ মাওলানা দীদার মাহদী

29

বাংলাদেশের সেরা হাফেজ মাওলানা দীদার মাহদী

 

আসসালামুআলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি ওয়াবারাকাতুহ ৷ সুপ্রিয় পাঠক! আজ আপনাদের সাথে একজন গুণী হাফেজ এর সাথে পরিচয় করিয়ে দিব ৷ যিনি একাধারে হাফেজ ৷ কওমি থেকে দাওরায়ে হাদীস ৷ আলিয়া থেকে ফাজিল ৷ এবং বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনার্স করা ৷ বাংলাদেশের সেরা হাফেজ মাওলানা দীদার মাহদী ৷

 

দীদার মাহদী
বাংলাদেশী আলেম, লেখক ও গীতিকার
হাফেজ মাওলানা দীদার মাহদী একজন বাংলাদেশী তরুণ আলেম, উদীয়মান বক্তা, খতীব,  ইসলামী লেখক, ছড়াকার, গীতিকার, শিক্ষক ও সমাজসেবী। তিনি দোলা মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশনের সেক্রেটারী, দক্ষিণ গজারিয়া সমাজকল্যাণ ফাউন্ডেশনের সভাপতি। অধ্যাপনার পাশাপাশি তিনি বিভিন্ন পত্রিকায় লেখালেখি করেন। সমাজ উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে নিজেকে ব্যপৃত রাখেন।

ব্যক্তিগত তথ্য

বাংলাদেশের সেরা হাফেজ মাওলানা দীদার মাহদী
হাফেজ মাওলানা দীদার মাহদী
  • জন্মঃ ডিসেম্বর ২০০০ (বয়স ২১)
  • ধর্মঃ ইসলাম
  • জাতীয়তাঃ বাংলাদেশী
  • দাম্পত্য সঙ্গীঃ আসমা আক্তার হুমায়রা
  • সন্তানঃ ১ মেয়ে (রুফাইদা জান্নাত)
  • পিতামাতাঃ সিরাজুল ইসলাম (পিতা) দেলোয়ারা বেগম (মাতা)
  • জাতিসত্তাঃ বাঙালি
  • যুগঃ আধুনিক
  • আখ্যাঃ আহলুস সুন্নাহ ওয়াল জামায়াত
  • ব্যবহারশাস্ত্রঃ হানাফি
  • আন্দোলনঃ ইকামাতে দীন
  • প্রধান আগ্রহঃ তাফসির, ফিকাহ, লেখালেখি, ইসলামী আন্দোলন, অধ্যাপনা, গ্রাফিক্স ও ইউটিবিং

 

উল্লেখযোগ্য কাজঃ

  1. মাসিক ঝাঁজ (ছড়ার কাগজ)
  2. মদপায়ীদেরকে ভেংচি
  3. পীরবাবা  (যৌথগ্রন্থ)
  4. রিফ্লেকশন্স অফ সুরা ইউসুফ (শরঈ সম্পাদনা)
শিক্ষার্থীঃ বরিশাল সরকারি বিএম কলেজ

জন্ম পরিচিতি

দীদার মাহদী ২০০০ সালের ডিসেম্বরে বরিশাল জেলার মুলাদী থানাধীন কায়েতমারা গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা সিরাজুল ইসলাম বরিশাল জজকোর্টের একজন আইনজীবি সহকারী হিসেবে কাজ করছেন। তারা তিন ভাই। কোনো বোন নাই। তিনি বড়। মেঝো ভাই দীনার আহমাদ একাধারে হাফেজ, মাওলানা ও মুফতি। ছোটো ভাই দেলোয়ার হোসেন।

- Advertisement -

শিক্ষাজীবন

- Advertisement -

প্রাথমিক জীবনে দীদার মাহদী তার মাতা দেলোয়ারা বেগমের কাছে লেখাপড়া শুরু করেন। তার কাছে বাংলা ও ইংরেজী পড়ার পাশাপাশি কায়েদা শিখে কুরআন মাজীদও নাজেরা খতম করেন। প্রাইমারিতে ৫ম শ্রেণি পাশ করে মুন্সিরহাট নূর এ তাজ হাফেজী ও দাখিল মাদরাসায় হিফজ বিভাগে ভর্তি হন। পরে আমানতগঞ্জবাজার হাফেজী মাদরাসায় হিফজ সমাপ্ত করে হাফেজীর সম্মাননা পাগড়ী নেন।
ঢাকার জামিয়া ইসলামিয়া ইসলামবাগ মাদরাসায় তার কওমী শিক্ষাজীবন শুরু হয়। এখানে হেদায়াতুন্নাহু জামাত পর্যন্ত পড়াশোনা করেন। পরবর্তিতে বংশাল মদীনাতুল উলুম মাদরাসা, বড়কাটারা আশরাফুল উলুম মাদরাসা, মুসলিমবাগ মাদরাসায় অন্যান্য জামায়াত পেরিয়ে যুগশ্রেষ্ঠ বুযুর্গ হযরত হাফেজ্জী হুজুর রহঃ প্রতিষ্ঠিত জামিয়া নূরিয়া ইসলামিয়া, কামরাঙ্গীরচর, ঢাকা মাদরাসায় মেশকাত ও দাওয়ারে হাদীস জামাত শেষ করে আল হাইয়াতুল উলইয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়্যা বংলাদেশের অধীনে ২০১৮ সালে দাওরায়ে হাদীস (মাস্টার্স) পরীক্ষা দিয়ে জায়্যিদ জিদ্দান (প্রথম বিভাগ) পেয়ে উত্তীর্ণ হন।

 

পাশাপাশি বড়কালীনগর ফাজিল মাদরাসা থেকে ২০১৫ সালে দাখিল পরীক্ষায় জিপিএ-৫ এবং ২০১৭ সালে আলিম পরীক্ষায় এ গ্রেড পেয়ে উত্তীর্ণ হয়ে বরিশাল সরকারি বিএম কলেজে ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগে অনার্সে ভর্তি হন। বর্তমানে অনার্স ফোর্থ ইয়ারে আছেন।

কর্মজীবন

তিনি এক বছর ধীপুর আইডিয়াল মাদরাসার সহকারি প্রধান ও মসজিদের ইমাম ও খতীবের দায়িত্ব পালন করেন। ২০২০ সাল থেকে দারুলহুদা মডেল মাদরাসা, কোদালপুর, গোসাইরহাট, শরীয়তপুরের ভাইস প্রিন্সিপ্যালের দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি মাসিক ঝাঁজ নামক একটি প্রতিবাদী ছড়ার অনলাইন কাগজের সম্পাদনা করছেন। দোলা মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশনের সেক্রেটারি ও দক্ষিণ গজারিয়া সমাজকল্যাণ ফাউন্ডেশনের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি বাংলাদেশ মুফাসসির পরিষদ শরীয়তপুর জেলার সমাজসেবা সম্পাদক।

পরিবার

পারিবারিক জীবনে তিনি বিবাহিত ও এক মেয়ের জনক। তার স্ত্রী কওমি মাদরাসার হেদায়াতুন্নাহু পর্যন্ত পড়াশোনা করেছেন। পাশাপাশি দাখিল। তার শ্বশুর জনাব হাজী আশরাফ আলী মাল একজন অবসরপ্রাপ্ত কৃষি অফিসার।

প্রকাশনা

তার সম্পাদিত মাসিক ঝাঁজ এর কয়েকটি বিশেষ সংখ্যা বেশ আলোচিত। একক গ্রন্থ মদপায়ীদেরকে ভেংচি (ছড়াগ্রন্থ)। তার লেখা বেশ কিছু ইসলামী গান প্রকাশ পেয়েছে। রামাদান, মাটি, মানুষ, ধর্ষণ উল্লেখযোগ্য তার লেখা গান। সমসাময়িক বিষয়াবলিতে তিনি বিভিন্ন পত্রিকায় ছড়া, গল্প, প্রবন্ধ লিখে থাকেন।

- Advertisement -