রাগের মাথায় তালাক দিলে কি তালাক হবে ? মাওলানা শরিফ আহমাদ

1,967

রাগের মাথায় তালাক হওয়া প্রসঙ্গ

 

 

প্রশ্নঃ রাগের মাথায় তালাক দিলে কি তালাক হয়ে যাবে?

খাইরুল ইসলাম মানিক, যশোর ।

 

 

উত্তরঃ بسم الله الرحمن الرحيم

 

 

জী ।‌ রাগের মাথায় তালাক দিলে তালাক হয়ে যাবে । কেননা তালাক সাধারণত মানুষ রাগের বশেই দিয়ে থাকে ‌।‌ মুহাব্বত করে কেউ কখনো তালাক দেয় না । সুতরাং রাগের বশে দেওয়া সুস্থ ব্যক্তির তালাক পতিত হয়ে যাবে ।

 

আপনাকে পাল্টা প্রশ্ন করি-

 

রাগের মাথায় যদি কেউ ঘরে আগুন লাগিয়ে দেয় অথবা রাগের বশে যদি কারো গলা কেটে ফেলে লোকটি মারা যাবে কিনা ?

 

কি উত্তর দিবেন আপনি ?

নিশ্চয়ই বলবেন ঘরে আগুন দিলে সবকিছু জ্বালিয়ে দেবে । পুড়ে সব ছাই হয়ে যাবে । ‌কিংবা বলবেন গলা যেভাবে কাটা হোক না কেন আহত লোকটি মারা যাবে ।‌ এটাই তো যুক্তি । এটাই তো চরম বাস্তবতা ।

 

ঠিক তেমনই তালাকের ব্যাপারটি । এটি খুব সতর্কতার একটি বিষয় । ভয়ঙ্কর একটি শব্দ তালাক । এই তালাক শব্দটি নিয়ত করে বলুক বা রাগের জেরে বলুক। আর ভালোবেসে বলুক স্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে মুখ দিয়ে এ শব্দ বের করলেই তালাক পতিত হয়ে যাবে ।

 

হাদীস থেকে দলীল:

 

عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ قَالَ: ” ثَلَاثٌ جِدُّهُنَّ جِدٌّ وَهَزْلُهُنَّ جِدٌّ: الطَّلَاقُ، وَالنِّكَاحُ، وَالرَّجْعَةُ “

 

হযরত আবু হুরায়রা রাদিআল্লাহু তা’আলা আনহু থেকে বর্ণিত। রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেছেন, তিন বিষয় এমন যে, ইচ্ছেকৃত করলে ইচ্ছেকৃত এবং ঠাট্টা করে করলেও ইচ্ছেকৃত বলে ধর্তব্য হয়। তা হল, তালাক, বিবাহ এবং তালাকে রেজয়ীপ্রাপ্তা স্ত্রীকে ফিরিয়ে নিয়ে আসা। (সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদীস নং-২০৩৯, সুনানে আবু দাউদ, হাদীস নং-২১৯৪)

 

তালাকের প্রসঙ্গই তো ওঠে রাগের মুহূর্তে

 

ঠান্ডা মাথায় তালাক দেয় ক’জন লোকে বলুন ? যদি কারো বৈবাহিক সম্পর্ক ছিন্ন করার একান্ত ইচ্ছা ও প্রয়োজনীয়তা থাকে তাহলে ফ্যামিলি মুরুব্বিদের সঙ্গে আলাপ করুন । পরামর্শ নিন । পবিত্র কুরআনের ঘোষণা-

 

وَاِنۡ خِفۡتُمۡ شِقَاقَ بَیۡنِہِمَا فَابۡعَثُوۡا حَکَمًا مِّنۡ اَہۡلِہٖ وَحَکَمًا مِّنۡ اَہۡلِہَا ۚ اِنۡ یُّرِیۡدَاۤ اِصۡلَاحًا یُّوَفِّقِ اللّٰہُ بَیۡنَہُمَا ؕ اِنَّ اللّٰہَ کَانَ عَلِیۡمًا خَبِیۡرًا

 

অনুবাদ: যদি তাদের মধ্যে সম্পর্কচ্ছেদ হওয়ার মত পরিস্থিতিরই আশঙ্কা কর, তবে স্বামীর পরিবার থেকে একজন এবং স্ত্রীর পরিবার থেকে একজন সালিস নিযুক্ত করবে। তারা উভয়ের মীমাংসা চাইলে আল্লাহ সর্বজ্ঞ, সবকিছু অবহিত। (আন নিসা – ৩৫)

 

- Advertisement -

আপনারা পড়ছেন – রাগের মাথায় তালাক দিলে কি তালাক হবে ?

 

পরিবার থেকে সমাধান না হলে যোগ্য আলেমদের কাছে যান। সঠিক মাসআলা-মাসায়েল নিন। তখন ভেবেচিন্তে সঠিকভাবে কার্যক্রম বাস্তবায়ন করুন। কিন্তু অধিকাংশ মানুষ এটা করে না । তালাকের পরে রাগ কমে গেলে তখন আফসোস করে । অন্যরা নয় ছয় কথা দিয়ে বুঝালে দুঃখ প্রকাশ করে । এবং আলেমদের কাছে ফাতাওয়া জানতে গিয়ে মিথ্যার আশ্রয় নেয় । বানিয়ে বানিয়ে কথা বলে । সত্যকে গোপন করে । টাকার বিনিময়ে মিথ্যা সাক্ষী ও প্রস্তুত করে ।‌ ভেবে দেখা প্রয়োজন দুনিয়ার আদালতে মিথ্যা ও ধোঁকাবাজি চলে । কিন্তু আল্লাহর আদালতে এগুলো চলবে না । সেখানে প্রতারণার কোনো সুযোগ নেই । দেওয়া হবে না । আল্লাহ তাআলা অন্তর্যামী । তাই লোকলজ্জার ভয় না করে আল্লাহ তাআলার ভয় অন্তরে বিদ্যমান রাখুন ।

 

 

- Advertisement -

সকলের এ কথা জেনে রাখা প্রয়োজন তালাক পতিত হওয়ার জন্য নিয়তের কোনো

দরকার নেই । এটা কোন ইবাদত নয় যে নিয়ত করে করতে হবে। নিয়ত থাক বা না থাক সর্বাবস্থায় তালাক শব্দ বলে ফেললে বা কাগজে লিখে দিলে তালাক হয়ে যাবে।

তেমনি ভাবে রাগের অবস্থায়, হাস্যরস কিংবা ঠাট্টাচ্ছলে দিলেও তালাক পতিত হয়ে যাবে।

 

তবে হ্যাঁ কেউ যদি প্রচন্ড রেগে যায় ও রাগের ফলে বেহুঁশ হয়ে পড়ে । অর্থাৎ পাগল হয়ে যায় । আর ওই অবস্থায় সে কি কথা বলেছে কিছুই মনে না থাকে তাহলে ওই অবস্থায় তালাক কার্যকর হবে না ।

তবে শর্ত হলো বেহুশ হয়ে যাওয়া এবং সেই সময়ের কোন কথা মনে না থাকা ।‌

 

 

হাদীস থেকে দলীল

 

নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন ইগলাকের ( জবরদস্তি কিংবা কঠিন রাগের অবস্থায়) তালাক কিংবা দাস আজাদ নেই । ( সুনানে ইবনে মাজাহ,২০৪৬)

 

রাগের মাথায় তালাক দিলে তালাক হবে কি

রাগের মাথায় তালাক কথাটির উত্থান ?

 

১৯৬৮ সালে আইয়ুব খানের শাসনামলে যখন পারিবারিক ‘ল’গঠিত হয় তখন সেখানে বিয়ে-তালাক ইদ্দত বিষয়ক ইসলামবিরোধী বেশকিছু আইন পাশ হয় । তখনই প্রচার করা হয় রাগের মাথায় তালাক হয় না কথাটি । তখন থেকেই আলেম-ওলামারা তীব্র প্রতিবাদ করেছেন । এখনো করছেন । কিন্তু সে আইন সংশোধন করা হয়নি । তাই ওই কথার মাধ্যমে কোর্টে জেরা করে থাকেন আইনজীবীরা ।

কোর্ট থেকে কথাটি কোন না কোনভাবে ছড়িয়ে পড়েছে যেখানে সেখানে । তারা যত খোঁড়া অজুহাত-যুক্তি পেশ করুক না কেন এগুলো গ্রহণযোগ্য হবে না । কেননা মানুষ সুস্থ স্বাভাবিক অবস্থা কখনো তালাক দেয় না । তালাক রাগের মাথায় দিয়ে থাকে । আর দিলেই কার্যকর হয়ে যাবে ।

 

পড়ুন – ড্রেসিং করা মুরগী খাওয়ার বিধান কি ?

 

দৃষ্টি আকর্ষণঃ প্রিয় পাঠক! আপনার মনের মধ্যেও যদি কোন জটিল বিষয় নিয়ে প্রশ্ন থাকে তাহলে আমাদের জানাতে পারেন । কোরআন ও হাদিসের আলোকে আপনাকে উত্তর জানানো হবে । আমাদের কে প্রশ্ন করার ঠিকানা ঃ shershabartafb@gmail.com

 

والله اعلم بالصواب

উত্তর লিখনে:

শরিফ আহমাদ

শিক্ষার্থী: ইফতা বিভাগ ।

 

 

 

 

- Advertisement -