- Advertisement -

- Advertisement -

জেনে নিন শিশুর ইসলামিক নাম অর্থসহ

28

শিশুর  ইসলামিক নাম অর্থসহ

মুসলিম ঘরে জন্মানো শিশুদের ইসলামিক নাম রাখা প্রতিটা গার্ডিয়ানের অন্যতম একটি কর্তব্য।

সদ্য ভূমিষ্ট হওয়া সন্তানের জন্য একটি সুন্দর ও অর্থবহ ইসলামিক নাম রাখা নিয়ে নানা রকম বিড়ম্বণায় পড়তে হয় মা-বাবাদের।

এটা স্বাভাবিক যে, একটি সন্তান যখন মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করবে, তখন তার নামটি ইসলামিক নিয়ম-নীতির মাধ্যমে রাখা হবে।

তবে বর্তমানে সমাজে অনেক পিতা-মাতাকে দেখা যায় যে, সন্তানের নামটি আধুনিক যুগের সাথে তাল মিলিয়ে রাখতে গিয়ে একটি নেতিবাচক অর্থবহ নাম সিলেক্ট করেছে।

পরোক্ষণে যখন বুঝতে পারে, তখন প্রচুর টাইম লস হয়। তাই যদি আমরা সন্তানের নাম রাখার ক্ষেত্রে পূর্ব থেকেই একটু সচেতন থাকি, তাহলে এরকম বড় রকমের ভুল থেকে বেঁচে যাবো।

 

একটি ভালো ইসলামিক নাম রাখার জন্য মা-বাবা সহ আত্মীয়-স্বজনদের নানা রকম জটিলতা এবং কষ্ট ভোগ করতে হয়।

তারই প্রেক্ষিতে মা-বাবা সহ আত্মীয়দের কষ্ট কিছুটা লাঘব করতে আজকের আমরা ছেলে ও মেয়ে উভয়ের বেশ কিছু ইসলামিক নাম নিয়ে আলোচনা করবো।

এখানে বিভিন্ন রকম বর্ণ মোতাবক নামগুলো থাকবে। যেমন – ছেলেদের নামের ক্ষেত্রে স দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম সহ মেয়েদের ক্ষেত্রেও এরকম বর্ণ মোতাবেক নামগুলোর তালিকা তৈরি করা হয়েছে।

আজকের আর্টিকেলটিকে আমরা সাধারণত দুটি ভাগে তুলে ধরার চেষ্টা করবো। সেগুলো হলো-

  • ছেলে শিশুর ইসলামিক নাম
  • মেয়ে শিশুর ইসলামিক নাম

মূলত এই দুইটি পার্টে সম্পূর্ণ আর্টকেলটি সাজানো হয়েছে।

তাই আপনি যদি সত্যিকার অর্থেই আপনার শিশুর জন্য একটি সুন্দর ইসলামিক নাম চয়েজ করতে চান, তাহলে মনোযোগ সহকারে আর্টিকেলটি পড়ুন।

 

ছেলে শিশুর ইসলামিক নাম

 

এখানে অনেক গার্ডিয়ান রয়েছে যারা তাদের ছেলে শিশুর জন্য একটি ভালো ও অর্থবহ ইসলামিক নাম খুঁজছেন।

যে বিধায় এই পার্টে বেশ কিছু সুন্দর সুন্দর ছেলেদের ইসলামিক নামের তালিকা তুলে ধরা হলো।

চলুন তাহলে ছেলেদের ইসলামিক নামের তালিকাটি পড়া যাক-

রাইয়্যান = Raiyan = জান্নাতের দরজা বিশেষ

মামদুহ = Mumduh = প্রশংসিত

নাবহান = Nabhan = খ্যাতিমান

বোরহান = Borhan = প্রমাণ,

গালিব = Galib = বিজয়ী,

হালিম = Halim = ভদ্র,

গোলাম মুহাম্মদ = Golam Muhammed = মুহাম্মদের দাস

গোলাম কাদের = Golam Kader = কাদেরের দাস ইত্যাদি।

 

উসামা = Usama = সিংহ

হামদান = Hamdan = প্রশংসাকারী

লাবীব =  Labir = বুদ্ধিমান

রাযীন = Rajin = গাম্ভীর্যশীল

নাবীল = Nabil  = শ্রেষ্ঠ

নাদীম = Nadim = অন্তরঙ্গ বন্ধু

জালাল =  Jalal = মহিমা,

কফিল = Kafil = জামিন দেওয়া,

করিম = Karim = দানশীল,সম্মানিত,

কাশফ = Kashof = উন্মুক্ত করা,

কামাল = Kamal = যোগ্যতা,সম্পূর্ণতা,

গণী = Goni = ধনী,

শফিক = Shafiq = দয়ালু

তানভীর = Tanvir = আলোকিত

আজিজ =  Ajij = ক্ষমতাবান

আনাস = Anas = অনুরাগ

লোকমান = Lokman = জঞানী

মাসুম = Masum = নিষপাপ

জাফর = Jafor = বড় নদী

ইমাদ = Imad = সুদৃঢ়স্তম্ভ

শিশুর ইসলামিক নামঃ

মাকহুল = Makhul = সুরমাচোখ

মাইমূন = Maimun = সৌভাগ্যবান

হুসাম = Husam = ধারালো তরবারি

বদর = Bodor =পূর্ণিমার চাঁদ

হাম্মাদ = Hammad = অধিক প্রশংসাকারী

হামদান = Hamdans = প্রশংসাকারী

সাফওয়ান = Safowan = স্বচ্ছ শিলা

গানেম = Ganem = গাজী, বিজয়ী

খাত্তাব = Khattab = সুবক্তা

সাবেত = Sabet = অবিচল

শাকের = Saker = কৃতজ্ঞ

তাযিন = Tajin = সুন্দর

ইমাদ = Emad = খুঁটি

শাদমান = Shadman = হাসিখুশী

 

সুলতান আহমদ = Sultan Ahmmed = প্রশংসিত সাহায্যকারী

সাইফুদ্দীন = Saifuddin = দ্বীনের সূর্য্য

সাইফুল হক = Saiful Haq = প্রকৃত তরবারী

সাইফুল হাসান = Saiful Hasan = সুন্দর কল্যাণ

সাইফুল ইসলাম = Saiful Islam = ইসলামের প্রিয়

সাইয়্যেদ = Saiyed = সরদার

সৈয়দ আহমদ = Saoid Ahmmed = প্রশংসিত ভয় প্রদর্শক

সাখাওয়াত হুসাইন = Sakhawat Hossain = সুন্দর আলোবিচ্ছুরক

সাকিব সালিম = Sakib Salim = দীপ্ত স্বাস্থ্যবান

সালাউদ্দীন = Salauddin = দ্বীনের ভদ্র

সালাম = Salam = নিরাপত্তা

 

সলীমুদ্দীন = Salimuddin = দ্বীনের সাহায্য

সামীম  = Samim = চরিত্রবান

সামিন ইয়াসার = Samin Yasir = মুল্যবান সম্পদ

সাজেদর রহমান = Sajedor Rahman = দয়াময়ের সামনে মস্তকঅবনমিতকারী

সাব্বীর আহমেদ = Sabbir = প্রশংসিত সাহায্যকারী

সালিম শাদমান = Salim Shadman = স্বাস্থ্যবান আনন্দিত

রাদ শাহামাত = Rad Shamat = বজ্র সাহসিকতা

রাব্বানী = Rabbani = স্বর্গীয়

রাব্বানী রাশহা = Rabbani Rashada = স্বর্গীয় ফলের রস

রবীউল হাসান = Robiul Hasasn = ইসলামের বসন্তকাল

 

রফিকুল হাসান = Rafiqul Hasan = সুন্দেরের উচ্চ

রফিকুল ইসলাম = Rafiqul Islam = ইসলামের মহত্ত্ব

রফিউদ্দীন = Rofiuddin = দ্বীনের সুগন্ধী ফুল

- Advertisement -

রাগীব আবিদ = Ragib Abid = আকাঙ্গ্ক্ষিত এবাদতকারী

রাগীব আখলাক = Ragib Akhlak = আকাঙ্গ্ক্ষীত চারিত্রিক গুনাবলি

রাগীব আখইয়ার = Ragib Akhyear = আকাঙ্গ্ক্ষি চমৎকার মানুষ

রাগীব আখতার = Ragib Akhtar =  আকাঙ্ক্ষিত তারা

রাগীব আমের  = Ragib Amer  = আকাঙ্গ্ক্ষিত শাসক

রাগীব আনিস = Ragib Anis = আকাঙ্গ্ক্ষিত বন্ধু

রাগীব আনজুম = Ragib Anjum =  আকাঙ্ক্ষিত তারা

রাগীব আনসার = Ragib Ansar = আকাঙ্গ্ক্ষিত ব্ন্ধু

রাগীব আসেব  = Ragib Aseb = আকাঙ্গ্ক্ষি যোগ্যব্যক্তি

রাগীব আশহাব = Ragib Ashhab = আকাঙ্গ্ক্ষিত বীর

রাগীব বরকত = Ragib Barkot = আকাঙ্গ্ক্ষিত সৌভাগ্য

রাগীব হাসিন = Ragib Hasin = আকাঙ্গ্ক্ষিত সুন্দর

রাগীব ইশরাক = Ragib Esrak = আকাঙ্ক্ষিত সকাল

রাগীব মাহতাব = Ragib Mahtab = আকাঙ্ক্ষিত চাঁদ

শিশুর আধুনিক নাম অর্থসহ

 

রাগীব মোহসেন = Ragib Mohsen = আকাঙ্ক্ষিত উপকারী

রাগীব মুবাররাত = Ragib Mubararat = আকাঙ্ক্ষিত ধার্মিক

রাগীব মুহিব = Ragib Muhib = আকাঙ্ক্ষিত প্রেমিক

রাগীব নাদের = Ragib Nader = আকাঙ্ক্ষিত প্রিয়

রাগীব নিহাল = Ragib Nihal = আকাঙ্ক্ষিত চারা গাছ

রাগীব নূর = Ragib Nur = আকাঙ্ক্ষিত আলো

রাগীব রহমত = Ragib Rahmot  = আকাঙ্ক্ষিত দয়া

রাগীব রওনক = Ragib Rawnok = আকাঙ্ক্ষিত সৌন্দর্য

 

রাগীব সাহরিয়ার = Ragib Shariyar = আকাঙ্ক্ষিত রাজা

রাগীব শাকিল = Ragib Shakil  = আকাঙ্ক্ষিত সুপরুষ

রাগীব ইয়াসার = Ragib Yasir = আকাঙ্ক্ষিত সম্পদ

রাগীব নাদিম = Ragib Nadim = আকাঙ্ক্ষিত সংগী

রাশীদ = Rashid = সরল,শুভ

রাহীম = Rahim = দয়ালু

মূলত আজকের আর্টিকেলে এগুলোই ছিল ছেলেদের জন্য সুন্দর ইসলামিক নাম। আপনি যদি সত্যিকার অর্থেই আপনার ছেলের জন্য একটি ইসলামিক নাম খুঁজে থাকেন।

তাহলে  আশা করি ইতিমধ্যে আপনি এখানে থেকে যেকোনো একটি নাম পিক করতে পেরেছেন।

আর যদি এখনো কোনো নাম চয়েজ করতে না পেরে থাকেন, তাহলে মনোযোগ সহকারে পুরো পোস্টটি পুনরায় পড়ুন।

 

মেয়ে শিশুর ইসলামিক নাম

 

আজকের আর্টিকেলের এটি হলো দ্ধিতীয় পার্ট। এই পার্টে আমরা জানতে চেষ্টা করবো মেয়ে শিশুর কিছু ইসলামিক নাম সম্পর্কে।

এখানে বেশ কিছু মেয়ে সন্তানের নাম উল্লেখ করা আছে। আপনি আপনার ইচ্ছা অনুযায়ী এখানে থেকে যেকোনো একটি সুন্দর নাম চয়েজ করতে পারেন।

তাহলে চলুন মেয়ে শিশুর ইসলামিক নামের তালিকা টি পড়া যাক।

তাযকিয়া   = Tajkia = পবিত্রতা

তাসলিমা = Taslima =   সর্ম্পণ

তাবাসসুম  = Tabassum =  মুসকি হাসি

তাসনিয়া = Tasnia =  প্রশংসিত

তাহসীনা   = Tahsina =   উত্তম

তাহিয়্যাহ  = Taiyah =   শুভেচ্ছা

তোহফা = Tohfa =   উপহার

তাখমীনা = Takhmina =   অনুমান

তাসমিয়া  = Tasmia =   নামকরণ

তাসনীম = Tasnim = বেহেশতের ঝর্ণা

তাসফিয়া = Tasfia = পবিত্রতা

তাসকীনা = Taskina = সান্ত্বনা

দীবা   = Diba =   সোনালী

বিলকিস   = Bilkis =   রাণী

আনিকা  = Anika =  রুপসী

তাবিয়া   = Tabia =   অনুগত

তাসমীম = Tasmim = দৃঢ়তা

তাশবীহ = Tashbih = উপমা

তাকিয়া  = Takia =   চরিত্র

তাকমিলা = Taklima = পরিপূর্ণ

তামান্না = Tamanna = ইচ্ছা

তামজীদা = Tamjida = মহিমা কীর্তন

আফরা = Afra =সাদা

সাইয়ারা = Saiyara =তারকা

আফিয়া = Afia = পুণ্যবতী

মাহমুদা = Mahmuda = প্রশংসিতা

রায়হানা = Rayhana = সুগন্ধি ফুল

হাসিনা = Hasina =সুন্দরি

হাবীবা = Habiba =প্রিয়া

ফারিহা = Faria = সুখি

মেয়ে শিশুর ইসলামিক নাম অর্থ সহ

দীবা = Diba = সোনালী

বিলকিস = Bilkis = রাণী

রাইসা = Raisha = রাণী

রাফিয়া = Rafia = উন্নত

নুসরাত =Nusrat = সাহায্য

নিশাত = Nisaht =আনন্দ

নাঈমাহ = Naimah = সুখি জীবন যাপনকারীনী

নাফীসা = Nafisa = মূল্যবান

মাসূমা = Masuma =নিষ্পাপ

 

উপরোক্ত সমস্ত নামগুলো হলো মেয়েদের নাম। এখানে থেকে আপনি আপনার সন্তান কিংবা আত্মীয় কারো কোনো কণ্যা সন্তানের জন্য সুন্দর একটি নাম চয়েজ করতে পারেন।

তাই  আশা করি আপনি যেকোনো একটি নাম আপনার পরিবারের মেয়ে সদস্যের জন্য সিলেক্ট করতে পেরেছেন।

 

যদি এখনো কোনো একটিও নাম সিলেক্ট করতে না পেরে থাকেন, তাহলে দয়া করে পুনরায় পোস্টটি পড়ুন।

 

শেষ কথা

এখানে বেশ কিছু ছেলে ও মেয়েদের নাম উল্লেখ করে আলাদা আলাদা দুটি তালিকা প্রকাশ করেছি। আশা করি এখানে থেকে আপনারা নাম রাখার ক্ষেত্রে বেশ ভালোভাবে উপকৃত হয়েছেন।

আর যদি কোনো একটি নামও চয়েজ করতে না পেরে থাকেন,তাহলে পুনরায় লিস্টগুলো পড়তে চেষ্টা করুন।কেননা এখানে উল্লেখিত প্রতিটি নামিই হলো বাঁচাইকৃত নাম।

সবগুলো নাম হলো ইসলামিক নাম। সবগুলো নামের অর্থ হলো ইতিবাচক। যা একটি নাম চয়েজের ক্ষেত্রে যথেষ্ট ডাটা। সুতরাং এখান থেকে আপনি আপনার ছেলে অথবা মেয়ের জন্য যেকোনো একটি নাম চয়েজ করে পিক করতে পারেন কোনো রকম সংকোচন ছাড়াই।

লিখেছেনঃ ইকরামুল হাসান 

প্রতিষ্ঠাতাঃ বাংলা টিপ